অপরাধ বার্তা

পরকীয়া সন্দেহ বাকেরগঞ্জে স্ত্রীর চক্ষু উৎপাটনের চেষ্টা

বাকেরগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূর চক্ষু উৎপাটনের চেষ্টা করেছে তার স্বামী। এ সময় স্ত্রীকে কুপিয়ে আহতও করেছে।

গুরুতর আহত গৃহবধূ শাহিনুর বেগমকে (৪০) শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার সন্তোষদি গ্রামের হাওলাদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
শাহিনুর জানান, তার স্বামী মাওলানা আবদুস ছত্তার তার চোখ তুলে ফেলার চেষ্টা করেছে। ওই রাতে ছত্তার ও অন্য এক অচেনা পুরুষ ঘরে ঢুকে তার হাত, পা ও মুখ বেঁধে ফেলে।

এরপর ছত্তার তার বুকের ওপর ওঠে ছুড়ি দিয়ে চোখ তুলে ফেলার চেষ্টা করে। ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করা হয়। কানের ভেতরে চিকন কিছু ঢুকিয়েও আঘাত করা হয়।

এ ঘটনাকে ডাকাতি বলে সবাইকে জানানোর শর্ত দেয় ছত্তার। রাজি হলে ছত্তার নিজেই নিজেকে আঘাত করে ঘরের দরজা খুলে ডাকাত পড়েছে বলে চিৎকার দেয়। রাব্বি এ ঘটনা ঘটিয়েছে। চরাদী ইউনিয়নের সন্তোষদি বাজার জামে মসজিদের ইমাম ছত্তারকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
শাহিনুরের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী হাসপাতাল থেকে ছত্তারকে আটক করে পুলিশ। ওসি (তদন্ত) ফয়েজ উদ্দিন মৃধা জানান, বিষয়টি ডাকাতি বলে জানানো হলেও মাওলানা ছত্তার এ ঘটনা ঘটিয়েছেন এটা স্পষ্ট। এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, শাহিনুরের চোখে আঘাত মারাত্মক। চোখ নষ্ট হওয়ারও আশঙ্কা রয়েছে। তবে এখন স্পষ্ট করে কিছুই বলা যাচ্ছে না। এছাড়া তাকে শারীরিকভাবেও নির্যাতন করা হয়েছে।

মাওলানা ছত্তার বলেন, তিন সদস্যের একটি ডাকাত দল তাদের বাড়িতে প্রবেশ করে। এ সময় সামনের ঘরে থাকায় দু’জন আমাকে বেঁধে মারধর করে। ঘরের ভেতরে কি হয়েছে তা দেখতে পাইনি। আমার মাথায়ও আঘাত করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, তার স্ত্রীর সঙ্গে চর আইচা গ্রামের রাব্বির পরকীয়ার সম্পর্ক রয়েছে। এ নিয়ে আমাদের মধ্যে অনেক সময় ঝগড়া হয়েছে।
Jugantor

Show More
W3 Techniques

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close